শিরোনাম

নরসিংদীতে বাড়ছে লটকন চাষ, এবছর লটকন বিক্রি হবে প্রায় দেড়শত কোটি টাকা।

নরসিংদী প্রতিনিধি : নরসিংদীর অর্থনীতিতে গুরুত্বপূর্ণ অবদান রাখছে এক সময়কার অপ্রচলিত ফল “লটকন”। দেশের গন্ডি পেরিয়ে বিদেশেও এখন রপ্তানী হওয়ায় অর্থনৈতিক গুরুত্ব বেড়েছে লটকনের। অর্থনৈতিকভাবে লাভবান হওয়ায় লটকন চাষে আগ্রহ বাড়ছে কৃষকদেরও। চলতি মৌসুমে ১ হাজার ৫ শত ৮০ হেক্টর জমিতে ২৩ হাজার ৭ শত মেট্রিক টন লকটনের ফলন পাওয়া যাবে বলে আশাবাদী কৃষি বিভাগ। আর উৎপাদিত এ লটকনের বিক্রির লক্ষ্যমাত্রা ধরা হয়েছে ১ শত ৬৫ কোটি ৯০ লাখ টাকা।

প্রায় ৩০ বছর আগে প্রথম নরসিংদীর বেলাবো উপজেলার লাখপুর গ্রামে অপ্রচলিত ফল লটকনের আবাদ শুরু হয়। এরপর থেকে বেলাব ও শিবপুর উপজেলার কয়েকটি ইউনিয়নের লালমাটির এলাকায় লটকন চাষের প্রসার ঘটতে থাকে। দিনদিন মানুষের মধ্যে স্বাস্থ্য সচেতনতা বৃদ্ধির ফলে খাদ্য ও পুষ্টিগুণ সমৃদ্ধ লটকনের চাহিদা বাড়তে থাকে বাজারে। বাজারে ব্যাপক চাহিদা ও লাভজনক হওয়ায় প্রতি বছরই লটকনের চাষ বাড়তে থাকে। বিশেষ করে বেলাব ও শিবপুর উপজেলায় গত ৩০ বছরে বাণিজ্যিকভাবে লটকনের প্রসার ঘটেছে। দুই উপজেলার প্রায় প্রতিটি পরিবারের অর্থনীতির মূল চালিকাশক্তি এখন লটকন। লটকন চাষ করে ভাগ্যের চাকা ঘুরানোর পাশাপাশি, বেকার সমস্যার সমাধানের পথ খুঁজে পেয়েছেন অনেকে।

এই অঞ্চলের লটকন দেশের চাহিদা মিটিয়ে রপ্তানী হচ্ছে দেশের বাইরে। প্রতি মণ লটকন বিক্রি হচ্ছে ৩ হাজার টাকা থেকে ৪ হাজার টাকা পর্যন্ত।

কৃষি বিভাগ জানিয়েছেন, শিবপুর ও বেলাবো উপজেলার লাল রংয়ের উঁচু মাটিতে প্রচুর পরিমাণ ক্যালসিয়াম ও খনিজ উপাদান বিদ্যমান থাকায় এখানকার মাটি ও আবহাওয়া লটকন চাষের জন্য খুবই উপযোগী। এছাড়া রায়পুরা, পলাশ ও মনোহরদী উপজেলার কিছু কিছু এলাকার মাটিও লটকন চাষের উপযোগী। গাছের গোড়া থেকে শুরু করে প্রধান কান্ডগুলোতে ছড়ায় ছড়ায় ফলন হয় এই লটকনের।

মৌসুমী এ ফলের অধিকাংশই বেচাকেনা হয় বাগানে। তাছাড়াও নরসিংদীর মরজাল ও শিবপুর বাজারের দেশের বিভিন্ন স্থানের পাইকারী ক্রেতারা এসে এ দুটি বাজার থেকে লটকন কিনে নিয়ে যাচ্ছেন। এ বছর প্রকারভেদে কেজি প্রতি  ৬০ টাকা থেকে ১২০ টাকায় বেঁচাকেনা হচ্ছে এই লটকন।

(Visited 58 times, 1 visits today)

About The Author

শরীফ ইকবাল রাসেল নরসিংদী প্রতিনিধি, ঢাকা বিভাগ, বাংলাদেশ

এই বিভাগের আরও সংবাদ

LEAVE YOUR COMMENT

Your email address will not be published. Required fields are marked *


অ্যাবাউটবিজ্ঞাপনযোগাযোগ শর্ত ও নিয়মাবলী