তানজির ইসলাম রানা, ডেস্ক রিপোর্ট: করোনার থাবায় শেষ পর্যন্ত স্থগিত হয়ে গেলে ২০২১ আইপিএল। আইপিএল দলগুলোতে করোনার সংক্রমণ বেড়ে যাওয়ায় এমন সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়। টুর্নামেন্ট শুরুর নতুন দিন তারিখ আলোচনার ভিত্তিতে ঠিক করা হবে।

মঙ্গলবার দুপুরে সানরাইজার্স হায়দরাবাদের কিপার-ব্যাটসম্যান ঋদ্ধিমান সাহা কভিড-১৯ পজিটিভ হওয়ার খবর প্রকাশের পর টুর্নামেন্ট স্থগিত করার এ ঘোষণা দেওয়া হলো।

জনপ্রিয় ক্রিকেটভিত্তক ওয়েবসাইট ইএসপিএন ক্রিকইনফো ও ক্রিকবাজ তাদের প্রতিবেদনে জানাচ্ছে, আইপিএল আপাতত স্থগিত ঘোষণা করা হয়েছে।

ক্রিকবাজের প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, আজ দুপুর সাড়ে ১২টা নাগাদ আইপিএলের ভাগ্য নির্ধারণে বৈঠকে বসেছিলেন ভারতীয় ক্রিকেট বোর্ড (বিসিসিআই) এর শীর্ষকর্তারা। প্রাথমিকভাবে তারা ভেবেছিলেন ছয় শহরের বদলে একটি শহরে খেলা চালিয়ে নেওয়ার। কিন্তু শেষ পর্যন্ত সে প্রস্তাব টেকেনি।

চূড়ান্ত সিদ্ধান্ত নেওয়ার আগে আইপিএলে অংশগ্রহণকারী দলগুলোর কাছ থেকে তাদের মতামত জিজ্ঞেস করেছে আয়োজকরা। বেশ কয়েকটি দল পুরো আইপিএল বন্ধ করে দেওয়ার পক্ষেই নিজেদের মত দিয়েছে। তাই আপাতত স্থগিত করার সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে।

আইপিএলে এখনো পর্যন্ত আট ফ্র্যাঞ্চাইজির চারটিতে করোনা পজিটিভ হয়েছেন খেলোয়াড় ও সাপোর্ট স্টাফরা। মঙ্গলবার তৃতীয় ও চতুর্থ দল হিসেবে করোনাভাইরাসে আক্রান্ত খেলোয়াড়ের কথা জানিয়েছে সানরাইজার্স হায়দরাবাদ ও দিল্লি ক্যাপিট্যালস। এর আগে কলকাতা নাইট রাইডার্সের দুই খেলোয়াড় এবং চেন্নাই সুপার কিংসের দুই সদস্য করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হন।

করোনাভাইরাসের কারণে ভারতের বর্তমান পরিস্থিতি খুবই নাজুক। এর মাঝেও অনেকটা চ্যালেঞ্জ নিয়েই আয়োজিত হচ্ছিল আইপিএল। তবে সোমবার দুটি ফ্র্যাঞ্চাইজির (কলকাতা নাইট রাইডার্স ও চেন্নাই সুপার কিংস) কয়েকজন করোনায় আক্রান্ত হওয়ার পর থেকেই আইপিএল বন্ধের দাবি ওঠে।

আরও সংবাদ

Write a comment

Your email address will not be published. Required fields are marked *