ডেস্ক রিপোর্ট: জলবায়ু পরিবর্তনের সবচেয়ে বেশি ঝুঁকিতে দক্ষিণ এশিয়ার চারটি দেশের একটি হচ্ছে বাংলাদেশ। এই পরিবর্তনে শিশুদের স্বাস্থ্য, শিক্ষা ও সুরক্ষা হুমকির মুখে রয়েছে। শুক্রবার জাতিসংঘ সংস্থা ইউনিসেফের প্রকাশিত নতুন একটি প্রতিবেদনে এই আশঙ্কার কথা তুলে ধরা হয়েছে।

ইউনিসেফের প্রতিবেদন অনুসারে, ঝুঁকিতে থাকা দক্ষিণ এশীয় অপর তিনটি দেশ হলো আফগানিস্তান, ভারত ও পাকিস্তান। এই অঞ্চলের নেপাল ও শ্রীলঙ্কা বৈশ্বিকভঅবে প্রভাবিত ৬৫টি দেশের তালিকায় রয়েছে।

এই প্রতিবেদন প্রকাশের মধ্য দিয়ে ইউনিসেফ শিশুদের জলবায়ু ঝুঁকি সূচক (সিসিআরআই) প্রবর্তন করলো। এই সূচক তাপপ্রবাহ ও ঘূর্ণিঝড়ের মতো জলবায়ু ও পরিবেশগত আঘাত এবং দুর্যোগে শিশুরা কতটা ঝুঁকিতে রয়েছে সেটির ভিত্তিতে তৈরি করা হয়েছে।

এই সূচকে ‘চরম উচ্চ ঝুঁকিপূর্ণ’ এলাকা হিসেবে চিহ্নিত করা ৩৩টি দেশে বসবাস করছে প্রায় ১০০ কোটি শিশু। এর মধ্যে দক্ষিণ এশিয়ার চারটি দেশও রয়েছে। বাংলাদেশ তালিকার ১৫তম অবস্থানে রয়েছে। দক্ষিণ এশিয়ার মধ্যে পাকিস্তান ১৪তম, ভারত ২৬তম, নেপাল ৫১তম, শ্রীলঙ্কা ৬১তম এবং ভুটান ১১১তম অবস্থানে রয়েছে।

দক্ষিণ এশিয়ায় ইউনিসেফের আঞ্চলিক পরিচালক জর্জ লারিয়া-আদজেই বলেন, এই প্রথমবারের মতো দক্ষিণ এশীয় শিশুদের ওপর জলবায়ু পরিবর্তনের প্রভাবের স্পষ্ট প্রমাণ আমরা পেয়েছি। খরা, বন্যা, বায়ু দূষণ ও নদী ভাঙনে লাখো শিশু গৃহহীন ও ক্ষুধা এবং স্বাস্থ্যসেবা ও পানিবিহীন পরিস্থিতিতে রয়েছে।

সূত্র: বাংলা ট্রিবিউন/চ্যানেল ফোর নিউজ/আল জাজিরা

আরও সংবাদ

Write a comment

Your email address will not be published. Required fields are marked *