তানজির ইসলাম রানা, ডেস্ক রিপোর্ট: কার্তিক আরিয়ান অভিনীত ‘ধামাকা’ ছবিটি সত্যি নেট দুনিয়ায় সাড়া ফেলেছে। এই মুহূর্তে ‘ধামাকা’ ওটিটি প্ল্যাটফর্মের সবচেয়ে দামি ছবি। এর আগে কোনো ছবির স্বত্ব এত বেশি দামে বিক্রি করা হয়নি। এ ক্ষেত্রে কার্তিক শুধু এ প্রজন্মের তারকাদের নয়, অক্ষয় কুমারের মতো সুপারস্টারকেও পেছনে ফেলে দিলেন।

বলিউড নায়ক কার্তিক আরিয়ানের বাজার দর ক্রমেই বেড়ে চলেছে। এই মুহূর্তে তিনি ছবিপ্রতি ২০ কোটি রুপি পারিশ্রমিক নেন, যা বাংলাদেশি মুদ্রায় ২২ কোটি ৬০ লাখ টাকা। আর নির্মাতারাও হাসিমুখে তা দিতে প্রস্তুত। কার্তিকের সমসাময়িক কোনো নায়ক এত পারিশ্রমিক পান না। তবে এই মুহূর্তে কার্তিক চর্চায় উঠে এলেন ‘ধামাকা’ ছবির জন্য। জানা গেছে, নেটফ্লিক্স ‘ধামাকা’ ছবির স্বত্ব কিনেছে ১৩৫ কোটি রুপি বা ১৫২ কোটি টাকা দিয়ে। এর আগে কোনো ছবির জন্য এত বড় অঙ্ক কোনো ওটিটি প্ল্যাটফর্মকে দিতে হয়নি। তাই ১০ দিন শুটিং করে বানানো এই ছবির প্রযোজকদের মুখে এই দুর্দিনে হাসি চওড়া হয়েছে। কত কম সময়ে কত দামি ছবি বানানো যায়, তার একটা উদাহরণ হয়ে থাকবে এই ছবি।

আপাদমস্তক থ্রিলারধর্মী এই ছবির শুরু থেকে শেষ পর্যন্ত টান টান উত্তেজনা আছে। আর দ্বিতীয় কারণ, এই ছবির নায়ক কার্তিক আরিয়ান। কার্তিক বিটাউনের প্রথম সারির নায়কদের মধ্যে একজন। তাঁর জনপ্রিয়তা এই মুহূর্তে তুঙ্গে। আর এ ধরনের সিনেমার যাঁরা দর্শক, তাঁরাই কার্তিক আরিয়ানের বড় ভক্ত।

লকডাউনের পর ‘ধামাকা’ ছবির শুটিং শুরু হয়েছিল। ডিসেম্বরে মাত্র ১০ দিনের মধ্যে সমগ্র ছবির শুটিং শেষ হয়ে গিয়েছিল। সেই ছবি বিক্রি হলো ১৩৫ কোটি রুপি বা ১৫২ কোটি টাকায়। জানা গেছে, কার্তিক এই ছবির জন্য ১৪ দিনের ডেট দিয়েছিলেন। এই ছবির জন্য তাঁর এতটাই প্রস্তুতি ছিল যে শুটিং সময়ের আগে শেষ হয়ে গিয়েছিল। এর আগে কোনো কমার্শিয়াল ছবির শুটিং এত কম সময়ে শেষ হয়নি।

‘ধামাকা’ ছবির বেশির ভাগ শুটিং একটা হোটেল পুরোটা ভাড়া নিয়ে করা হয়েছে। শিল্পী ও টেকনিশিয়ান মিলিয়ে ৩০০ সদস্য নিয়ে ‘ধামাকা’র শুটিং হয়েছিল। ওই সময়ে অন্য কারও হোটেলে প্রবেশের অনুমতি ছিল না। কিছু দৃশ্যের আউটডোর শুটিং হয়েছে।

সূত্র: প্রথম আলো/নেট ফ্লিক্স

আরও সংবাদ

Write a comment

Your email address will not be published. Required fields are marked *